byman

ঢাকা টু সৈয়দপুর বিমান ভাড়া, টিকিট, ফ্লাইট বুকিং ২০২২

ঢাকা টু সৈয়দপুর বিমান ভাড়া, টিকিট, ফ্লাইট বুকিং ২০২২ সব তথ্য এবং কিভাবে আকাশ পথে ঢাকা থেকে সৈয়দপুর যাতায়াত করবেন,অত্যন্ত সহজ উপায়ে ঘরে বসে ঢাকা টু সৈয়দপুর ফ্লাইট এর টিকিট কিভাবে বুকিং দিবেন।ঢাকা সৈয়দপুর বিমান ভাড়া টিকিটের মূল্য কত ? কত সময়ের মধ্যে ঢাকা টু সৈয়দপুর বিমান এর মাধ্যমে যাতায়াত করা যায়।

ঢাকা সৈয়দপুর বিমান ভাড়া ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াতের ক্ষেত্রে অধিকাংশ যাত্রীরা নিয়মিতভাবে বিমানের মাধ্যমে যাতায়াত করে থাকেন।প্রধান কারন হচ্ছে, ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াতের জন্য যদি কেউ রেলপথ কিংবা সড়ক পথে যাতায়াত করে থাকে সেক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সময় ব্যয় হয়ে থাকে। 

এছাড়া আপনি যাতায়াতের ক্ষেত্রে রেলপথে কত সময়ের মধ্যে যাতায়াত করতে পারবেন। এবং কিভাবে, কখন, কোন সময়, ট্রেনের টিকেট বুকিং করতে হয়। এবং পরিবহনের মাধ্যমে যাতায়াতের জন্য কোন পরিবহন উপযুক্ত এবং অত্যন্ত নিরাপত্তার সহীদ নির্দিষ্ট ঠিকানায় পৌঁছে দেয়। এবং কোন পরিবহনে যাতায়াত করলে কি পরিমান ভাড়ার মাধ্যমে ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াত করা যায়।

সকল উল্লেখিত প্রশ্নগুলোর উত্তর নিয়ে আমরা আপনাদের সামনে উপস্থিত হয়েছি আজকে। তাই আপনার যাতায়াত অত্যন্ত আনন্দদায়ক এবং নিরাপদ  হক এই প্রত্যাশায়, যদি আপনি শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত পড়েন তাহলে অবশ্যই সঠিক একটি সিদ্ধান্ত নিয়ে ঢাকা টু সৈয়দপুর নিয়মিত যাতায়াত করতে পারবেন।

এখানকার অধিবাসীদের অধিকাংশই বিভিন্ন ব্যাবসা ও শিল্প কারখানা গুলোর সাথে জড়িত। এখানে একটি বিসিক শিল্প এস্টেট স্থাপিত হয়েছে যার পুরোটাই শিল্প কারখানা দিয়ে গড়ে তোলা হয়েছে। এছাড়া শহরে একটি সেনানিবাস, একটি বিমান বন্দর, ও দেশের একমাত্র ই.এম.ই সেন্টার ও স্কুল আছে।

নীলফামারী জেলার অন্তত বাংলাদেশের উত্তর পশ্চিমাঞ্চলের অতিপ্রাচীন প্রসিদ্ধতম একটি থানা শহর সৈয়দপুর। উল্লেখ্য যে, ভারতবর্ষের কোচবিহার থেকে আগত মুসলিম সায়েদ পরিবার এখানে এসে বসবাস শুরু করেন।এবং  সেখান থেকেই সৈয়দপুর নামের উৎপত্তি স্থল।

1915 সালে সৈয়দপুর থানা শহরটি প্রতিষ্ঠা হয়। যদিও সৈয়দপুর থানা শহর নামে পরিচিত তথাপি যে কোন জেলা শহরের চেয়ে কোন অংশে কম নয়। এছাড়া উল্লেখযোগ্যভাবে সুপরিচিত সৈয়দপুর শহরের বাংলাদেশের একমাত্র রেলওয়ের প্রধান কারখানা অবস্থিত। এছাড়া অন্যান্য থানা শহরের চেয়ে সৈয়দপুর থানা শহর সম্প্রতি ব্যতিক্রমী শহর।

এখানকার লোক জনেরা বিভিন্ন প্রকার ব্যবসা-বাণিজ্যের সাথে অন্তর্ভুক্ত থাকায় সর্বোচ্চ পরিমাণ এর বাংলাদেশের যেকোন স্থানের লোক যাতায়াত করে থাকে বিভিন্ন ব্যবসা বাণিজ্যের কার্যক্রম পরিচালনার ক্ষেত্রে। এছাড়া বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের বিভাগ রংপুর এবং এর সাথে দিনাজপুর এর সকল জেলা অর্থাৎ 8 টি জেলার প্রাণকেন্দ্র সৈয়দপুর অবস্থিত।

এবং সকল রেলওয়ে এর কার্যক্রম প্রধানত পরিচালনা করে থাকে সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানা। এছাড়া উক্ত থানা শহরকে সকল প্রকার শিল্প-বাণিজ্যের অন্যতম প্রসার কেন্দ্র বলা হয়ে থাকে।

বাংলাদেশের উত্তরবঙ্গের 8 টি জেলার অন্তর্ভুক্ত সকল লোকজন তাদের সকল প্রকার ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রয়োজনের তাগিদে সর্বোচ্চ সময় সৈয়দপুর শহরের যাতায়াত করে থাকে। কাজেই খুব সহজে অনুমান করা যায়, এখানে প্রতিনিয়ত সকল ধরনের লোক তাদের প্রয়োজনের তাগিদে যাতায়াত করে থাকে।

সেক্ষেত্রে তাদের যাতায়াতের যোগাযোগ ব্যবস্থার অন্যতম একটি মাধ্যম বর্তমান সময়ে সৈয়দপুর  এয়ারলাইনস।এছাড়া ঢাকা থেকে সৈয়দপুর যাতায়াতের জন্য তিন ধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা এখানে বিদ্যমান আছে।

প্রথমতঃ আপনি সড়ক পথে ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াত করতে পারেন। দ্বিতীয়তঃ আপনি রেলপথে ঢাকা টু সৈয়দপুর নিয়মিত ট্রেন সার্ভিসের মাধ্যমে যাতায়াত করতে পারেন। এবং তৃতীয়তঃ হচ্ছে উন্নত যোগাযোগের এবং আরামপ্রিয় ভ্রমণ আকাশপথে আপনি ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াত করতে পারেন। 

ঢাকা টু সৈয়দপুর সড়ক পথ

ঢাকা টু সৈয়দপুর সড়ক পথে যাতায়াতের জন্য যে সকল পরিবহন সার্ভিস দিয়ে আসছে তাদের মধ্যে উল্লেখযোগ্য পরিবহন হচ্ছে, হানিফ পরিবহন, শ্যামলী পরিবহন, এনা পরিবহন, ডিপজল পরিবহন, এস আর পরিবহন, ইত্যাদি আরো অনেক পরিবহন নিয়মিত ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াত করে থাকে।

এছাড়া রংপুরের উদ্দেশ্যে ঢাকা থেকে যে পরিবহন গুলো আসে সেগুলো তো আপনি যাতায়াত করতে পারবেন। এবং দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে যে পরিবহনগুলোর নিয়মিত যাতায়াত করে থাকে উক্ত পরিবহনের মাধ্যমে আপনি যাতায়াত করতে পারেন।

তবে সকল ক্ষেত্রেই আপনার দূরত্ব প্রায় 348 কিলোমিটার। সে ক্ষেত্রে আপনার স্বাভাবিক নিয়ম অনুযায়ী 8 থেকে 9 ঘণ্টা সময় লেগে থাকে। এবং বিশেষ কিছু দিনে যেমন ঈদ দুর্গাপূজা বিভিন্ন সরকারি ছুটির দিনগুলোতে যাতায়াতের ক্ষেত্রে রাস্তায় সর্বোচ্চ জ্যামের কারণে প্রায় 15 থেকে 16 ঘণ্টা সময় লেগে যায়।

নাবিল পরিবহনের অনলাইন টিকেট, কাউন্টারের ঠিকানা এবং মোবাইল নাম্বার

হানিফ পরিবহনের অনলাইন টিকেট, কাউন্টারের ঠিকানা এবং মোবাইল নাম্বার

ঢাকা টু সৈয়দপুর রেল পথ

ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াতের জন্য রেলপথে যথেষ্ট ট্রেন সার্ভিস সৈয়দপুর টু ঢাকা নিয়মিত চলাচল করে থাকে। তারমধ্যে উল্ল্যেখযোগ্য ট্রেন হচ্ছে যেমনঃ সুন্দরবন এক্সপ্রেস, বরেন্দ্র এক্সপ্রেস, রুপসা এক্সপ্রেস, এবং নীলসাগর এক্সপ্রেস উল্লেখিত ট্রেন গুলির মধ্যে নিয়মিত ঢাকা টু সৈয়দপুর চলাচল করে থাকে।

নীলসাগর এক্সপ্রেস তবে রেলপথে যাতায়াতের ক্ষেত্রে আপনার সময় লেগে যায় প্রায় 12 থেকে 13 ঘণ্টা। বিশেষ কারণে বিভিন্ন স্টেশনে একাধিক সময় ট্রেন যাত্রাবিরতি করে প্রচুর সময় নষ্ট করে থাকে। সেক্ষেত্রে আপনার যাতায়াতের জন্য বিরক্তিকর একটি মাধ্যম হতে পারে। 

ঢাকা থেকে চিলাহাটি ট্রেনের নির্ধারিত সময়সূচী এবং ভাড়া

ঢাকা থেকে পার্বতীপুর ট্রেনের নতুন সময়সূচী এবং ভাড়া

ঢাকা টু সৈয়দপুর আকাশপথ

ঢাকা টু সৈয়দপুর উত্তরবঙ্গের মধ্যে উল্লেখিত একটি আকাশ পথ চলাচলে প্রধান মাধ্যম হিসেবে বিবেচিত হয়েছে এবং বিভিন্ন শিল্প কলকারখানা রংপুরে অবস্থিত হওয়ায় অত্যন্ত জনপ্রিয় তার সাথে আকাশপথে বিভিন্ন ফ্লাইট সমূহ প্রতিদিন নিয়মিত যাতায়াত করে থাকে।

উল্লেখ্য যে, প্রতিদিন অসংখ্য যাত্রী সৈয়দপুর থেকে ঢাকা ঢাকা থেকে সৈয়দপুর ফ্লাইটে যাতায়াত করছেন খুবই অল্প সময়ের মধ্যে অর্থাৎ 40 থেকে 45 মিনিট মাত্র সময় লেগে থাকে। তাই বর্তমান যাতায়াতের জনপ্রিয়তার একটি অন্যতম মাধ্যম বর্তমান সৈয়দপুর এয়ারলাইনস।

bman3

যদি আপনি আকাশপথে ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াত করতে চান। তাহলে অবশ্যই উক্ত ফ্লাইটের  নির্ধারিত সময়সূচী এবং কিভাবে টিকেট বুকিং করবেন তার সকল তথ্যগুলি নিচে দেওয়া হল।  

ঢাকা টু সৈয়দপুর ফ্লাইট ২০২২ এর সময়সূচী এবং যাতায়াতের উল্লেখিত ফ্লাইট সমূহ

ঢাকা টু সৈয়দপুর নিয়মিত যে সকল ফ্লাইট সমূহ যাতায়াত করে থাকে তাদের উল্লেখিত নামসমূহ নিচে উপস্থাপন করা হলো।

১।বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স

 ২।নভোএয়ার

 ৩।রিজেন্ট এয়ারওয়েজ

৪।ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্স

উপরে উল্লেখিত বিমান গুলি কখন কোন দিন কোন সময়ে যাতায়াত করে থাকে তা আপনাদের অবশ্যই সময়সূচী সম্পর্কে সঠিক ধারণা থাকতে হবে। তাই আপনাদের সুবিধার্থে নিচে সারণিতে প্রকাশ করা হলো।

bman4

বিশেষ দ্রষ্টব্যঃ উল্লেখিত বিমানগুলি যাতায়াতের ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য ভাবে কোন কারণবশত যদি আবহাওয়ার  কোন পূর্বাভাস থাকে সে ক্ষেত্রে পরিবেশ পরিস্থিতির কারণে শিডিউল পরিবর্তন হতে পারে। এতে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স কর্তৃপক্ষ দায়ী নয়। 

Refarens-sportsnet24

ঢাকা টু সৈয়দপুর বিমান ভাড়া ২০২২

ঢাকা সৈয়দপুর বিমান ভাড়া বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে সকলের কাছে সময় হচ্ছে অমূল্য সম্পদ। যেকোনো কাজের ক্ষেত্রে যত অল্প সময় ব্যয় করা যায় ততই সর্বোচ্চ সার্থকতা। সে ক্ষেত্রে মানুষ যাতে সময় অপচয় না হয় তার জন্য অতি দ্রুত সময়ে আপনি ঢাকা টু সৈয়দপুর যাতায়াতের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ এবং জনপ্রিয় উপযুক্ত একটি মাধ্যম হচ্ছে আকাশ পথের মাধ্যমে যাতায়াত করা।

bman12

সেক্ষেত্রে আপনার আমার পূর্বের অনেকেরই ধারণা, আকাশ পথে বিমানের মাধ্যমে যাতায়াত করলে সর্বোচ্চ ব্যয়ের সম্মুখীন হতে হয়। কথাটি বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে মোটেও যুক্তিযুক্ত নয়। আপনি আপনার সাধ্যের মধ্যে টিকেট ক্রয় করে আকাশ পথে যাতায়াত করতে পারবেন। সেক্ষেত্রে আপনার উল্লেখিত ভাড়া সমূহের একটি  তালিকা উপস্থাপন করা হলো।

এছাড়া বর্তমান সময়ে আপনি একটু উন্নত মাধ্যমে যাতায়াত করার ক্ষেত্রে ব্যয়ের পরিমাণ স্বাভাবিকের চেয়ে একটু বেশি হওয়াটাই স্বাভাবিক। তবে বেশি বলতে ততো বেশি নয়। আপনার পরিবহনের মাধ্যমে অথবা রেল এর মাধ্যমে আপনি ঢাকা যাতায়াত করলে যে পরিমাণ ভাড়া প্রয়োজন ঠিক তার কিছু পরিমাণ বেশি দিয়ে আপনি খুব সহজেই সৈয়দপুর টু ঢাকা বিমানের মাধ্যমে যাতায়াত করতে পারবেন।

bman11

আপনার লাগেজ সংক্রান্ত গুরুত্বপূর্ণ তথ্য

উল্লেখিত ফ্লাইট এর নিয়ম অনুযায়ী আপনি সর্বোচ্চ 20 কেজি মালামাল বহন করতে পারবেন। তাছাড়া কেবিন লাগেজ হিসাবে আপনি সর্বোচ্চ সাত কেজি বহন করতে পারবেন। এছাড়া বিজনেস সংক্রান্ত কারণে উল্লেখিত ভাবে যাতায়াত করে থাকলে আপনি সর্বোচ্চ 30 কেজি ওজনের মালামাল বহন করতে পারবেন এবং তারপরও আপনার মালামালের পরিমাণ যদি বেশি হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে আপনাকে এক্সট্রা পেমেন্ট করে আপনার মালামাল বহন করতে হবে। 

পরিশেষে

সুপ্রিয় বন্ধুরা আপনারা যারা ঢাকা টু সৈয়দপুর নিয়মিত যাতায়াত করে থাকেন তাদের জন্য সকল আপডেট তথ্য আমরা নিয়মিত আমাদের এই পোস্টে নিয়মিত প্রকাশ করে থাকি। আশাকরি আপনার উল্লেখিত তথ্যগুলো সুস্পষ্টভাবে বোঝা  সম্ভব হয়েছে। সে ক্ষেত্রে আমরা আপনাদের কাছে যাতায়াতের আরও আপডেট নতুন তথ্যগুলি প্রকাশ করে আপনার সহযোগিতা কামনা করছি।

ঢাকা টু কক্সবাজার বিমানের সময়সূচী এবং ভাড়া ২০২২

ঢাকা টু সিলেট বিমানের সময়সূচী এবং ভাড়া ২০২২

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *