আজ বিশ্ব পথ শিশু দিবস-2022

আজ ২রা অক্টোবর বিশ্ব শিশু দিবস ।প্রতিবছর জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচী অনুযায়ী বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উন্নয়নের কল্পে বিশ্ব শিশু দিবস পালন করা হয়।

জাতিসংঘ তথ্য অনুযায়ী বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি দিবস অত্যন্ত গুরুত্ব সহকারে পালন করা হয়ে থাকে তা হচ্ছে,

বিশ্ব  পথ শিশু দিবস।বর্তমান পৃথিবীর প্রায় সকল দেশ এই দিবসটি কে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে পালন করার উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়ে থাকে। 

বিশ্ব পথ শিশু দিবস

বর্তমান বাংলাদেশের অত্যন্ত প্রচলিত একটি দিবস। বিশ্ব পথ শিশু দিবস প্রতিবছর পালন করা হয়ে থাকে সকল স্তরের মানুষের সচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে কাজ করে থাকে।

দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয়

এই দিবসের মূল প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে অর্থাৎ প্রত্যেকটি স্তরের মানুষ আমরা যারা এই পৃথিবীতে বসবাস করি সকল স্তরের মানুষকে এই দিবস সম্পর্কে যথেষ্ট সচেতন হতে হবে।

অর্থাৎ বিভিন্নভাবে  ঝরে পড়া শিশুদের কে নিয়ে বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করে তাদের জীবনযাত্রা উন্নয়নের লক্ষ্যে এই দিবসে সকল আলোচনা হয়ে থাকে।

বর্তমান বাংলাদেশের পরিসংখ্যান মতে

পথ শিশুর সংখ্যা বর্তমান বাংলাদেশ পরিসংখ্যান এর মতে এখনো সকল কার্যাদি সম্পন্ন না হওয়ার কারণে গুরুত্বপূর্ণ এক জরিপের মতে,

বাংলাদেশ 5 থেকে 17 বছর বয়সী শিশুর সংখ্যা প্রায় 4 কোটি।যার মধ্যে প্রায় 32 লাখ পথশিশু অনাহারে অনাদরে জীবন যাপন করছে। 

অত্যন্ত অনুতাপের একটি বিষয় হচ্ছে যে, আমরা যারা সচেতন মানুষ এই সমাজে বসবাস করে থাকি। তাদের গুরুত্বপূর্ণ কোনো উদ্যোগ এক্ষেত্রে তারা নিয়ে থাকে না ।

অর্থাৎ এই পথ শিশুদের দায়ভার সঠিকভাবে কোথাও গ্রহণযোগ্য হয় না। বিধায় তাদের জীবনযাপন কাটে বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে, ফুটপাতে, বিভিন্ন ময়লা আবর্জনার মধ্যে  এদের বসবাস।

যেসকল চিত্র গুলো দেখলে সত্যিই মনে হয় আজও এদেশ স্বাধীন হয় নাই। পরাধীন দেশে আমরা বসবাস করছি।

পথ শিশুদের সুযোগ সুবিধা

এসকল পথ-শিশুদের সুযোগ সুবিধা নেই বললেই চলে অর্থাৎ তাদের সকল স্বাস্থ্যসেবা শতকরা 80 ভাগ শিশু কখনোই পায় না।

আবার তাদের খাবারের জন্য শতকরা 90 ভাগ শিশু কখনোই কারো কাছে খাবার পায় না।

এমনকি শতকরা 90 ভাগ শিশু কারো কাছে কোন বিষয়ে কখনো কোন আশ্রয় পায় না। মনে হয় তারা যেন মানুষ না তারা অন্য কিছু বোঝায়।

পরিশেষে

অনেক গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় তা হচ্ছে। পথ শিশুদের বর্তমান বাস্তব প্রেক্ষাপট নিয়ে কথা বললে খুবই দুঃখের একটি বিষয়, আমাদের এই স্বাধীন বাংলাদেশে আমরা সবাই স্বাধীনভাবে যে যার মত জোর জুলুম করে অন্যায় অত্যাচার করে অনেক ভোগ বিলাসের মধ্যে জীবনযাপন করছি। অথচ আমাদের পাশে থাকা রাস্তাঘাট ফুটপাত ব্রিজের নিচে ময়লা আবর্জনার মধ্যে যাদের বসবাস তাদের দিকে কখনোই ভুল করে তাকায় না।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *