আজ বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস প্রতিবছর 11 ই জুলাই এই দিবসটি জাতিসংঘ উন্নয়ন সূচি অনুযায়ী পালিত হয়ে আসছে ।যার একমাত্র প্রধান লক্ষ্য হচ্ছে যে,

বিশ্ব জনসংখ্যা সংক্রান্ত বিভিন্ন প্রশ্নের উওর দিতে সচেতনতা বৃদ্ধি করা। হাজার 987 সালের 11 ই জুলাই জনসংখ্যা বিশ্বের 500 কোটি ছাড়িয়ে গেলে সারাবিশ্বে জনমানুষের মধ্যে যে আগ্রহের সৃষ্টি হয়।

তাতে অনুপ্রাণিত হয়ে ওর 987 সালে জাতিসংঘ উন্নয়ন কর্মসূচি পরিষদ পরিচালনা কর্তিক এই দিবসটি প্রতিষ্ঠা করে। 

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস এর মূল লক্ষ্য

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস এর মূল লক্ষ্য হচ্ছে যে, বিভিন্ন কার্যক্রম অনুযায়ী মানুষের মধ্যে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে সচেতনতা বৃদ্ধি করা।

এছাড়া পরিবার পরিকল্পনা দারিদ্র্য মাতৃস্বাস্থ্য এবং মানবাধিকারের মতো জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ এর বিভিন্ন বিষয় নিয়ে কাজ করাই হচ্ছে একমাত্র মূল লক্ষ্য। 

জনসংখ্যা বৃদ্ধির ধারা

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা তথা এর পরিসংখ্যান মতে যদি বর্তমান প্রেক্ষাপট অনুযায়ী জনসংখ্যা বৃদ্ধির ধারা অব্যাহত থাকে তবে 2030 সাল নাগাদ বিশ্ব জনসংখ্যা হবে প্রায় 850 কোটি। এবং 2050 সাল নাগাদ জনসংখ্যা হবে 970 কোটি।

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা 2019 সালের পরিসংখ্যান মতে, প্রতি মিনিটে বিশ্বে 250 টি শিশু জন্মগ্রহণ করেন। তাই জাতিসংঘ বিশ্ব জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ দিবসের গুরুত্বপূর্ণ কার্যাবলী বিভিন্নভাবে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য কাজ করে আসছে। 

বর্তমান জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ বাংলাদেশের পরিসংখ্যান মতে,

যারা স্বাধীনতার পূর্ব থেকে পরিবার পরিকল্পনার মাধ্যমে কাজ করে আসছে বেসরকারি মাধ্যমে। এবং পরবর্তীতে সরকারিভাবে এর কার্যাবলি সম্পাদন করা হয়ে থাকে। যদিও শুরুতে নিয়ন্ত্রণ নিয়ে যথেষ্ট সচেতনতা অবলম্বন করা হয়েছিল।

কিন্তু বর্তমান সাম্প্রতিক সময়ে এর কার্যক্রম অত্যন্ত ধীর  গতিতে কার্যক্রম চলছে। বর্তমান অনেক সচেতন শিক্ষিত ব্যক্তিবর্গ এ বিষয়ে জেনে শুনেও অধিক সন্তান গ্রহণ করছেন। যা পরবর্তীতে অনেক ভয়ঙ্কর রূপ ধারণ  করবে।

বাংলাদেশের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের স্লোগান

 বাংলাদেশে জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য বিভিন্ন সচেতনামূলক কার্যক্রম গুলি বিভিন্নভাবে বাস্তবায়িত করে আসছে। যার প্রধান স্লোগান হচ্ছে, দুটি সন্তানের বেশি নয় একটি হলে ভালো হয়।

বাংলাদেশ পরিসংখ্যান এর বর্তমান অবস্থা

বাংলাদেশের পরিসংখ্যান অনুযায়ী বর্তমান প্রতি মিনিটে চারজন করে শিশু জন্মগ্রহণ করছে। যা নিঃসন্দেহে অনেক বড় সমস্যার  ইঙ্গিত প্রদান করছেন। এছাড়া পৃথিবীর মোট জনসংখ্যা 60 দশমিক 7 শতাংশ বসবাস করে শুধু এশিয়া মহাদেশে। 

1 লক্ষ 47 হাজার 570 বর্গকিলোমিটার আয়তনের এই বাংলাদেশের বর্তমান পরিসংখ্যান অনুযায়ী প্রায় 16 কোটি জনগণ বাস করছে।1961 সালের বাংলাদেশের জনসংখ্যা ছিল মাত্র তিন কোটির উপরে সেই জনসংখ্যা এখন বর্তমান রূপ ধারণ করেছে 5 গুণেরও অনেক বেশি.

বর্তমান বাংলাদেশের জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের বিশেষজ্ঞরা ধারণা প্রকাশ করেছেন যে, খুব দ্রুত বর্তমান জনসংখ্যা 20 কোটিতে দাঁড়াবে ।যা বাংলাদেশের জন্য হুমকিস্বরূপ হয়ে দাঁড়াবে।

পরিশেষে

বিশ্ব জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণ দিবসের সকল কার্যক্রম আরও জোরালোভাবে বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপট অনুযায়ী করা বিশেষ প্রয়োজন। সে ক্ষেত্রে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার জরিপ অনুযায়ী বর্তমান অবস্থা অনুযায়ী যদি ভবিষ্যতেও চলতে থাকে তাহলে খুব দ্রুত জনসংখ্যায় ভরে যাবে আমাদের এই ছোট্ট পৃথিবী।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *