জীবনের ভুলগুলো থেকে সফলতার কৌশল

 সর্বপ্রথম মানুষ যখন পৃথিবীতে আসে ।তখন ভুল করেই পৃথিবীতে আসে। অর্থাৎ আল্লাহতালা আদম ও হাওয়াকে স্বর্গের রেখে বলেছিলেন যে, ওই গন্ধ ফলের গাছের নিচে কখনো যেওনা এবং ওই গন্ধ ফলের গাছের ফল ভুল করে কখনো খাবে না। আদম হাওয়া ভুল করে ওই গন্ধম ফল  খেয়েছিলেন।

 আল্লাহতালা সাথে সাথে শাস্তিস্বরূপ তাদেরকে নির্দিষ্ট সময় বেঁধে দিয়ে পৃথিবীতে পাঠায়। শুরু হয় তাদের জীবনের শাস্তিস্বরূপ পৃথিবীতে পথ চলা। তাই আমরা যারা মানুষ তাদের ভুল হওয়াটা স্বাভাবিক। এই ঘুম থেকে জীবনে চরম শিক্ষা গ্রহণ করা আর যদি ভুলের মধ্যে থেকে ভুলগুলো নিয়ে জীবন যাপন করি তবে ভুলের মধ্যে জীবন শেষ। তার জীবনে সফলতা আর কোন সম্ভাবনাই থাকে না।

 আর যদি সঠিক পরিকল্পনা নিয়ে ভেবে থাকি যে, এই ভুল আর কখনোই করা যাবে না। তখন ভুল থেকে এক চরম শিক্ষা গ্রহণ করে সঠিক পথে চলতে হবে। ভুল হলেই সঠিক হওয়া সম্ভাবনা  থাকে।

তাই গিভ অ্যান্ড টেক এর দুনিয়ায় অর্থাৎ কিছু পেতে হলে আগে কিছু দিতে হয় তবেই পাওয়া যায়। এটাই হচ্ছে পৃথিবীর নিয়ম  নীতি। সফলতার মূল কৌশল হচ্ছে এই নিয়ম নীতি মধ্যে থেকে মানুষকে অবশ্যই ভুল থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে সফলতার মূল লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে।

আমরা মানুষ জাতি এই পৃথিবীতে আসার পর থেকেই যখন জীবনের পথ চলা শুরু হয় ঠিক তখন থেকেই জীবনে পথ চলার জন্য বিভিন্ন উপায় বিভিন্ন রকম সিদ্ধান্ত নিয়ে পথ চলতে হয়। আর এই পথ চলার মধ্যেই শুরু হয় সঠিক এবং ভুলে সিদ্ধান্ত।

যে সিদ্ধান্ত থেকে আমরা কেউ সঠিক সাফল্য পেয়ে থাকি আবার কেউ ভুলের মাশুল দিতে থাকি। তাই যখন ভুল হয়ে যায় তখন ওই ভুল থেকেই সঠিক শিক্ষা গ্রহণ করে সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ে সফলতা মূল লক্ষ্যে পৌঁছাতে হয়। এটাই হচ্ছে সফলতা কৌশল অর্থাৎ মূলমন্ত্র।

বাস্তব উদাহরণ

এই পৃথিবীতে আজ পর্যন্ত যত মানুষ জন্মগ্রহণ করে মৃত্যুবরণ করেছে তাদের মধ্যে যারা সর্বোচ্চ সফলতা অধিকার লাভ করেছেন তাদের জীবন ইতিহাস পড়লে অবশ্যই আপনি দেখতে পারবেন যে,

এই সফল মানুষ গুলো মধ্যে একজন ব্যক্তি ও নেই যে তার জীবনে কোন ভুল হয় নাই। বরং প্রত্যেক ব্যক্তির ইতিহাস ঘাটলে দেখা যায় তারা জীবনের সর্বোচ্চ ভুল করে সর্বোচ্চ সঠিক সফলতা পেয়েছেন।

তাই কোনভাবেই ভুল না হলে সঠিক সফলতা আসবেনা। এক্ষেত্রে একজন বিদ্যুৎ আবিষ্কারক বিজ্ঞানী  তার জীবন ইতিহাস থেকে জানা যায় যে, তিনি বিদ্যুৎ আবিষ্কার করতে  গিয়ে প্রায় 10 হাজার বার ভুল করে থাকে। তার পরেও তিনি হাল না ছেড়ে   আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যায়। এতে দেখা যায় তার পরবর্তী দিক নির্দেশনা অনুযায়ী তার বিদ্যুৎ আবিষ্কার সম্পন্ন হয়।

এরকম অসংখ্য বিজ্ঞানী আবিষ্কারক রয়েছে তারা ভুল করতে করতে হঠাৎ করে ভুল থেকে সঠিক সিদ্ধান্ত বেছে নিয়ে সফলতা লাভ  করে।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *