বাংলাদেশের জনসংখ্যা ও গড় আয়ু বৃদ্ধি -2022

বাংলাদেশের জনসংখ্যা এবং গড় আয়ু বৃদ্ধি সম্পর্কে সঠিক কিছু তথ্য আপনাদের জন্য উপস্থাপন করলাম যা আপনার আমার সকলের বর্তমান প্রেক্ষাপট অনুসারে অনুভব করা উচিত এবং সচেতন হওয়া উচিত।জনসংখ্যা সচেতনতা বৃদ্ধি বাংলাদেশের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ অপরিহার্য একটি বিষয়।

পরিসংখ্যান তথ্য অনুযায়ী ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের লোক সংখ্যা ছিল প্রায় ৬ কোটি।কিন্তু বর্তমান পরিসংখ্যান অনুযায়ী বাংলাদেশের এখন জনসংখ্যা প্রায় ১৮ কোটি।যা পূর্বের তুলনায় এখন তিন গুণে এসে দাঁড়িয়েছে।এটি বাংলাদেশের বর্তমান প্রেক্ষাপট অনুসারে ভয়ঙ্কর একটি দিক নির্দেশনা।

এভাবে চলতে থাকলে ২০৫০ সাল নাগাদ বাংলাদেশের জনসংখ্যা কোন পর্যায়ে পৌঁছে যাবে তা অবশ্যই আপনি অনুভব  করছেন।তাই বর্তমান সময়ে আমাদের একটি শ্লোগান হওয়া উচিত, জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণের জন্য  দুটি সন্তানের বেশি নয় একটি হলে ভালো হয়।

এছাড়া বাংলাদেশের বর্তমান সবচেয়ে বড় এবং প্রধান একটি সমস্যা জনসংখ্যা বৃদ্ধি যার কারণে দেশের সকল ভাবমুর্তি দিনদিন বিপদের সম্মুখীন হচ্ছে। অর্থাৎ কর্মসংস্থানের দিকে দৃষ্টি রাখে বোঝা যায় একজন ব্যক্তির বিপরীতে কতজন ব্যক্তি প্রতিযোগিতা করে কর্মসংস্থান খুঁজে বেড়াচ্ছে যার কারণে অসংখ্য ছেলেমেয়ে প্রতিনিয়ত বেকারত্ব হয়ে যাচ্ছে

এবং তারা বেকারত্বের কারণে বিভিন্ন অসামাজিক এবং বেআইনি মুলক সকল অপকর্মের সাথে লিপ্ত হচ্ছে।যেখান থেকে আমাদের মুক্তি পেতে হলে অবশ্যই জনসংখ্যা নিয়ন্ত্রণে আনতে  হবে।তাই আসুন নিজে সচেতন  হই এবং অন্যকে সচেতন করি। 

গড় আয়ু বৃদ্ধি

বাংলাদেশ বর্তমান তথ্যপ্রযুক্তির এই যুগে পূর্বের তুলনায় বর্তমান সময়ের প্রেক্ষাপটে প্রত্যেকটি মানুষের গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে।যা নিঃসন্দেহে একটি ভালো দিক। এছাড়া বর্তমান সময়ে জনসংখ্যা বৃদ্ধি নিয়ন্ত্রণের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ সচেতনতা বৃদ্ধির ফলে দেশে গড় আয়ু বৃদ্ধি পেয়েছে। বাংলাদেশের জনসংখ্যার ঘনত্ব দিন দিন যে হারে বেড়ে চলছে তাতে আমাদের জন্য অত্যন্ত সৌভাগ্যের একটি বিষয় গড় আয়ু বৃদ্ধি পাওয়া।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *