উক্তি

অহংকার নিয়ে উক্তি [সেরা কিছু কথা]

অহংকার নিয়ে উক্তি [সেরা কিছু কথা] অহংকার হচ্ছে, পৃথিবীর সকল শ্রেণীর মানুষের জীবনের ধ্বংসের একটি মূল চাবিকাঠি। তাই মানুষ হয়ে কখনো অহংকার করা একজন প্রকৃত মানুষের ক্ষেত্রে কখনোই কাম্য নয়। আর এই অহংকার সম্পর্কে এখানে এমন কিছু ব্যতিক্রম ধর্মী উক্তি, ফেসবুক স্ট্যাটাস ও ক্যাপশন খুঁজে পাবেন।  যা অহংকারী মানুষের সাথে শেয়ার করে থাকলে অবশ্যই সে তার ভুল বুঝতে পারবে। এছাড়া অহংকার হচ্ছে মানুষের পতনের মূল। অহংকার করা মহাপাপ।  এটা সকল ধর্মের বিশেষ চিরন্তন সত্য একটি বাণী। প্রেমিকার জন্য অসাধারণ কবিতা, ছন্দ, স্ট্যাটাস ও রোমান্টিক পিক 

অহংকার নিয়ে উক্তি

১। প্রকৃত মানুষ তারাই যারা অহংকার করার মত অনেক কিছু থাকার পরেও অহংকার করে না।

২। অহংকার হচ্ছে প্রতিটি মানুষের পতনের মূল,  যারা বুদ্ধিমান তারা কখনোই অহংকার করে না কারণ তারা জানে,  অহংকার মানুষের জীবনের ভয়ংকর একটি খারাপ অধ্যায়।

৩। কোন মানুষ তার যোগ্যতা না থাকার সত্বেও হঠাৎ করে অনেক কিছু যদি পেয়ে থাকে, তবে তারাই অহংকার করে থাকে।

৪। যার যোগ্যতা যত বেশি অল্প সে তত বেশি অহংকারই হয়ে থাকে।

৫। যদি একবার কেউ অহংকারী হয়ে থাকে,  তবে সে তার পাশে থাকা নিজের মানুষটি গুরুত্ব সম্পর্কেও বুঝতে পারে না।

৬। ভুল করে কখনো অহংকারী হবেন না, তাহলে জিতে গিয়েও হেরে যাবেন অহংকারের কারণে।

৭। মানুষের জীবন অত্যন্ত সংক্ষিপ্ত জীবন, তাই এই সংক্ষিপ্ত জীবনের অহংকার করে কখনোই ভালো ফল আশা করা সম্ভব নয়।

৮। অহংকারী মানুষ কোন এক সময় সে একাকীত্ব হয়ে থাকে,  যার কারণে এক সময় সে তার জীবনকে শেষ করে দিতে প্রস্তুত হয়ে যায়। 

৯। অহংকারী মানুষের সাথে কখনোই বন্ধুত্ব করবেন না, কারণ সে কারণে-অকারণে আপনাকে কষ্ট দিয়ে থাকবে।

১০। অহংকার একটি মানুষের জীবনের সবচাইতে জঘন্যতম অধ্যায়, যার জন্য সে একসময় একা হয়ে যায়।

১১। অহংকারী ব্যক্তির জীবনে পতন অনিবার্য, শুধু সময়ের অপেক্ষা মাত্র।

১২। “অহংকার হল নিজের দোষের মুখোশ।” – প্রবাদ

১৩। “অহংকার অহংকারের মা।” – তুমি একটা ছেলে

১৪। “অহংকার একটি ক্ষত, এবং অহংকার তার খোসা। ক্ষত খুলতে একজনের জীবন একটি ছুরি লাগে। – ফ্রেডরিখ নিটশে

১৫। “অভিমান আমাদের ক্ষুধা, তৃষ্ণা এবং ঠান্ডার চেয়ে বেশি খরচ করে।” – থমাস জেফারসন

১৬। “পতনের আগে অহংকার আসে।” – প্রবাদ

১৭। “একজন গর্বিত মানুষ নম্রতা শিখতে পারে, কিন্তু সে এতে গর্বিত হবে।” – মিগনন ম্যাকলাফলিন

১৮। “অহংকার একটি শোরগোল, বিতর্কিত পাপ এবং প্রায়ই পতনের আগে।” – ম্যাথু হেনরি

১৯। “অহংকার আমাদের কৃত্রিম করে, এবং নম্রতা আমাদের বাস্তব করে তোলে।” – টমাস মার্টন

২০। “অহংকার একটি ব্যক্তিগত প্রতিশ্রুতি। এটি এমন একটি মনোভাব যা মধ্যমতা থেকে শ্রেষ্ঠত্বকে পৃথক করে।” – অজানা

২১। “অহংকার হল শয়তানের প্রধান পাপ, আর শয়তান হল মিথ্যার জনক।” – এডউইন হাবেল চ্যাপিন

অহংকার সম্পর্কে সেরা কিছু কথা

বাইবেলের দৃষ্টিভঙ্গি:

খ্রিস্টধর্মে, গর্ব প্রায়শই লুসিফারের পাপের সাথে যুক্ত থাকে, যাকে তার গর্ব এবং ঈশ্বরকে অতিক্রম করার ইচ্ছার কারণে স্বর্গ থেকে বহিষ্কার করা হয়েছিল। বাইবেলে হিতোপদেশ 16:18 বলে, “ধ্বংসের আগে অহংকার, পতনের আগে অহংকারী আত্মা।”

গ্রীক দর্শন:

অ্যারিস্টটল এবং প্লেটোর মতো প্রাচীন গ্রীক দার্শনিকরাও অতিরিক্ত অহংকার বা অহঙ্কারের বিপদ নিয়ে আলোচনা করেছেন। তারা বিশ্বাস করে যে, অহংকার ব্যক্তি ও সমাজের জন্য দুঃখজনক পরিণতির দিকে নিয়ে যেতে পারে।

সাহিত্য:

শেক্সপিয়ারের “ম্যাকবেথ” এবং মিল্টনের “প্যারাডাইস লস্ট” এর মতো সাহিত্যকর্মগুলি অহংকারের থিমটিকে একটি দুঃখজনক ত্রুটি হিসাবে অন্বেষণ করে যা একটি চরিত্রের পতনের দিকে নিয়ে যায়।

দার্শনিক প্রতিফলন:

দার্শনিক যেমন সোরেন কিয়েরকেগার্ড এবং ফ্রেডরিখ নিটশে যথাক্রমে অস্তিত্ববাদ এবং ক্ষমতার ইচ্ছার প্রেক্ষাপটে গর্বের ধারণা নিয়ে আলোচনা করেছেন। কিয়েরকেগার্ড সত্যিকারের আধ্যাত্মিকতা এবং ঈশ্বরের সাথে সম্পর্কের প্রতিবন্ধক হিসাবে অহংকার সম্পর্কে সতর্ক করেছিলেন, যখন নীটশে নিজেকে জাহির করার মানুষের ইচ্ছার একটি অন্তর্নিহিত দিক হিসাবে গর্বকে দেখেছিলেন।

পূর্ব দর্শন এবং বৌদ্ধধর্ম:

পূর্ব দার্শনিক ঐতিহ্যে, অহং প্রায়ই অজ্ঞতা এবং সংযুক্তির সাথে যুক্ত থাকে। বৌদ্ধধর্মে, অহংকে পরাজিত করাকে জ্ঞানার্জনের দিকে একটি পদক্ষেপ হিসাবে দেখা হয়, কারণ এটি ব্যক্তিদের সমস্ত কিছুর আন্তঃসম্পর্কের প্রতি অন্ধ করে দিতে পারে।

Show More

Rafiqul Islam

আমি মোঃ রফিকুল ইসলাম। infosearch24.com ওয়েবসাইটে আমি ২০২০ সাল থেকে শিক্ষা, ভ্রমণ এবং তথ্যপ্রযুক্তিসহ বাংলাদেশ এবং আন্তর্জাতিক সময় উপযোগী বিভিন্ন তথ্য সর্বপ্রথম তুলে ধরি । আশাকরি আমার আর্টিকেল গুলো আপনারা সকলেই নিয়মিত উপভোগ করছেন।