সাফা মারওয়া পাহাড়ে যা ঘটেছিল হৃদয় কারা বাস্তব ঘটনা

সাফা মারওয়া পাহাড়ে ঘটে যাওয়া হৃদয়বিদারক বাস্তব ঘটনা প্রতিটি মুসলমানের অন্তরে সত্যিকার অর্থে হৃদয়বিদারক কষ্টের করুণ কাহিনী যা কখনো ভোলার যোগ্য নয়।ঘটনার বিবরণ আপনারা হয়তো সকলেই কোথাও না কোথাও পড়েছেন। কিন্তু এর তাৎপর্য পূর্ণ অর্থ আসলে কি ? আমাদের মুসলমানদের কি দায়িত্ব নিয়ে ইসলামের জন্য গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করা প্রয়োজন।

তা সকলেরই জানা বিশেষ প্রয়োজন।এই পৃথিবীর সৃষ্টি লগ্ন থেকে আদম-হাওয়া সৃষ্টি করে আল্লাহ তাআলা পৃথিবীতে প্রেরণ করেছিলেন এবং তারসাথে প্রেরণ করেছিলেন শয়তানের সকল ক্ষমতা  দিয়ে।তার উপর ভিত্তি করে সকল দুর্ঘটনা প্রত্যেকটি মুসলমানের জীবনে ঘটে যাচ্ছে প্রতিনিয়ত।উক্ত ঘটনাগুলি সম্পূর্ণ অবদান শয়তানের প্রভাবে যা কিছু হয়ে থাকে।

সে ক্ষেত্রে আমাদেরকে আরও সচেতন হয়ে শান্তির ধর্মে জীবন যাপন করে ইহকাল এবং পরকালে সর্বোচ্চ সার্থকতা অর্জন করতে হবে। এছাড়া মুসলমান ধর্মের সকল নিয়ম-নীতি আদেশ-উপদেশ নিষেধ সকল কিছু মেনে যদি একজন মানুষ জীবন-যাপন করতে পারে তাহলে তার জীবনে সর্বোচ্চ সফলতা এবং সার্থকতায়  পরিপূর্ণ হয় তার জীবন।

কাজেই সাফা মারওয়া পাহাড়েঘটে যাওয়া হৃদয়বিদারক ঘটনা অবলম্বনে প্রতিটি মুসলমানের দায়িত্ব ও কর্তব্য হচ্ছে সকল ক্ষেত্রে তাদেরকে শয়তানের সাথে লড়াই করে যুদ্ধে জয়লাভ করতে হবে। তবেই হবে একজন খাঁটি মুসলমান মানুষ।এছাড়া প্রতিটি মুসলমান মানুষকে শান্তির পথে আহ্বান করে সকলকেই সকলের দায়িত্ব পালন করে জীবন যাপন করতে হবে। 

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *